আপনার করা অপপ্রচারই আমার জন্য প্রচার

আপনার করা অপপ্রচারই আমার জন্য প্রচার হিসাবে কাজ করে, কিন্তু আপনি হয়তো সেটা বুঝেন না। আপনার করা একটা ব্যবহার আমাকে সতর্ক হতে সাহায্য করে, আপনি হয়ত সেটাও বুঝেন না। আপনার ধরা একটা ভূল আমাকে আরও শুদ্ধ করে তুলে। ছোট বেলাতে নিশ্চই এই কবিতাটা পড়েছেন,

নিন্দুকেরে বাসি আমি সবার চেয়ে ভাল,
যুগ জনমের বন্ধু আমার আঁধার ঘরের আঁলো।
সবাই মোরে ছাড়তে পারে, বন্ধু যারা আছে,
নিন্দুক সে ছায়ার মত থাকবে পাছে পাছে।
বিশ্বজনে নিঃস্ব করে পবিত্রতা আনে,
সাধক জনে নিস্তারিতে তার মত কে জানে?
বিনামূল্যে ময়লা ধুয়ে করে পরিষ্কার,
বিশ্বমাঝে এমন দয়াল মিলবে কোথা আর?
নিন্দুকে সে বেঁচে থাকুক বিশ্ব হিতের তরে;
আমার আশা পূর্ণ হবে তাহার কৃপা ভরে।

যদি এই কবিতাটা পড়ে থাকে, হয় আপনি ভূলে গেছেন, অথবা আপনি এর অর্থ কখনই ধরতে পারেন নি। কিভাবে বলছি? কারণ আপনি এখনও আমার অগোচরে আমার কুৎসা রটনা করতেই ব্যস্ত।

আমাদের সমাজে এখন কারও বিষয় কথা বলতে পারাটাই যেন কৃতিত্ব! কাউকে একটু হেয় করতে পারা, কাউকে একটু লজ্জা দিতে পারা এগুলি এখন একটা মজার বিষয়। আর এমন কথা বলে কারও যদি একটুকু বাঁশ দেওয়া যায়, তাইলেতো কথাই নাই। এভারেষ্টের চূড়ায় পৌছে যান যেন। কিন্তু আপনার হয়ত এটা মাথায় থাকে না যে মুসা ইব্রাহিম এবং মুহিত এত কষ্ট করে এভারেষ্টের চুড়ায় উঠেও তার প্রমার করতে এখনও ব্যস্ত, সেখানে আপনার এই ঠুনকো মনের এভারেষ্টের চূড়ায় ওঠার আনন্দ আরও বেশী ক্ষণস্থায়ী!

হঠাৎ এই টপিক নিয়ে কেন লিখছি? আমার পিছনে একজন বড় ভাই লেগেছেন, তাকে একটা সিম্পল ম্যাসেজ দেবার জন্য লেখাটা লেখা। আশাকরি তিনি পড়বেন, কারণ এটা আমার ফেসবুক, টুইটা এবং গুগল+ এ শেয়ার হবে, এবং আমার জানা মতে তিনি আমার প্রোফাইলের আপডেট পান। বড় ভাই আগেও একবার লেগেছিলেন, ফলাফল যা হবার ছিলো তাই হয়েছিলো! কি হয়েছিলো? উনারই উল্টা বাশঁ খেতে হয়েছিলো।

ওহ, মূল ঘটনায় যাবার আগে একটা-দুইটা বাস্তব লাইফের উদাহরণ দিয়ে যাই, না হলে আবার না বলে বসেন যে আমার সাথেই এমন ঘটে, অন্য কারও সাথে ঘটে না!

মনে আছে, বাংলা নিউজ ২৪ একবার বিকাশ (bKash) এর পিছে লাগলো? লাভ কার হয়েছিলো? যদিও বাংলা নিউজ এক প্রকার ব্লাকমেইল করে বিকাশের বিজ্ঞাপন পেয়েছিলো, কিন্তু লাভ মূলত হয়েছিলো বিকাশেরই। কারণ তারা বিনা মূল্যেই বিশাল একটা প্রচারণা পেয়ে গিয়েছিলো। এমনকি আমার নিজের যে সকল সার্ভিসে এখন বিকাশ পেমেন্ট নেই, সেগুলি আমি শুরুই করেছিলাম তাদের প্রচারণার পরে, কারণ বুঝতেই পারতেছিলাম যে বিকাশ কে দাঁড় করিয়ে দিলো এই বাংলা নিউজ ২৪।

এরও একটু আগের কথা, প্রায় ১০-১২ বছর আগের কথা। ডেসটিনি নামে একটা প্রতিষ্ঠন মাত্র তাদের যাত্রা শুরু করেছে, কেউই ঠিক ঠাক মত চিনে না। তাদের চেনাবার মহান সেই দায়িত্ব নিলো প্রথম আলো! নিজের পাওয়ার দেখিয়ে নাম করিয়ে দিলো ডেসটিনিকে। যদিও এখন ডেসটিনির অবস্থা করুন, কবে মূল মালিকরা কিন্তু ঠিকই বিশাল অংকের টাকা নিয়ে নিয়েছেন। যা আপনি হয়ত ধারণারও করতে পারবেন না।

শেষ আর একটা ঘটনা, ২০০৭ এ হঠাৎ একদিন কোন একটা পত্রিকাতে পড়লাম, আগামী আগষ্টেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফেসবুক। তারা নাকি আর চাপ সইতে পারছে না। হায় হায়, বলে কি, চাপ সইতে না পেরে বন্ধই হয়ে যাচ্ছে, আর আমি নামটাই শুনলাম আজকে! তখনও চলে জুলাই মাস, ভাবলাম কি না জানি জিনিষ, একটু বন্ধ হবার আগেই রেজিষ্ট্রেশন করে দেখি। এখন ২০১৪ চলে, আমি এখন ধুমায় ফেসবুক ইউজ করি।

ওহ, যা বলছিলাম। ঘটনা ২০১৩ এর প্রথম দিকে, সেই বড় ভাই, তিনি একজনকে হুদা কামে আমার বিষয়ে এত্তোগুলান বললেন। এত বেশীই বলে ফেলেছিলেন যে ঐ লোক বিশ্বয় বোধ করলেন, এবং আমাকে খুজে বের করলেন। এতে কি হলো? এই লোক ঐ ভাইয়ের কাষ্টমার না হয়ে আমার কাষ্টমার বনে গেলেন, এবং এখন পর্যন্ত উনি কম করে হলে আরও ৫-৬জনকে রেফার করেছেন। ঐঘটনার পর ঐ ভাই একটু ক্ষান্ত দিছিলেন। ভাবছিলাম এইবুঝি শেষ। ওমা, কই থেকে কি? উনি আবার শুরু করছেন।

আমার ক্লায়েন্টদের পাইলেই উনি আমার বিরুদ্ধে বুঝায়-শুনায় নিজের সার্ভিসে নিতে চাইতেছেন। আরে ভাই, নিজের ভালোটা শুধু বুঝান, আমার বদনাম করেন ক্যারে? আমার কয়েকজন ক্লায়েন্ট ফোন দিয়ে বলল এই কাহিনি। আমি তো তাজ্বব! এটা কোনো কথা হলো? যাই হোক, উনি যা যা বুঝাচ্ছেন, তাতে আমার কতটুকু ক্ষতি হবে জানি না, তবে আমার ২জন কাষ্টমারতো বলেই ফেলেছে, উনার ব্যবসা ১০ বছরের, আপনার ব্যবসা ৪বছরের, তাতেই কম্পিটিশন! আপনি ১০ বছরে যাইতে যাইতে তো এই লোক জ্বলে পুড়ে শেষ হয়ে যাবে!

তাই, ভাই, আসেন আমরা যার যার নিজের চরকায় তেল দেই। নিজের ভালো সার্ভিসের কথা সবাইকে জানাই। কারও কুৎসা না রটাই। কে কত পচাঁ এটা বলে নিজের মুখের গন্ধ না ছড়াই।

আশাকরি আমার পাঠাক, গ্রাহক, সাবস্ক্রাইবার, ফলোয়ার কেউ এই লেখাটায় মাইন্ড করবেন না। কেউ এটাও ভাববেন না যে আমি তার কুৎসা রটনা করছি। আমি ঘটনা বলছি, এমনকি তার নামটাও গোপন রাখছি। আশাকরি আমার লেখাটা আপনাদেরও বুঝতে সাহায্য করবে যে অন্যের কুৎসা রটনা করা উচিৎ না, এতে বরং হিতে বিপরীত হয়। আর আশাকরি এটাও শিখবেন যে কেউ আপনার সাথে এমন করলে তার উপরে ক্ষেপে না গিয়ে তাকে সুন্দর ভাবে একটা ম্যাসেজ দেওয়া অনেক ভালো। একটা কথা সব সময় মনে রাখবেন:

রেগে হেলেন তো হেরে গেলেন

তো, আজকে এই পর্যন্তই। যারা আমার সব আপডেট সরাসরি ইমেইলে পেতে চান, তারা সাইটের ডান পাশে উপরের দিকে ইমেইল সাবস্ক্রাইব ঘরে আপনার ইমেই লিখুন ও সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন। এ ছাড়া আমার ব্লগের ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে রাখতে পারেন বা গুগলে আমাকে ফলো করতে পারেন। ধন্যবাদ।

2 thoughts on “আপনার করা অপপ্রচারই আমার জন্য প্রচার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *