বিজনেসের বাশঁ হইতে স্প্যাম ফোল্ডারই যথেষ্ট!

বিজনেসের বাশঁ হইতে স্প্যাম ফোল্ডারই যথেষ্ট! কেন বলছি এই কথা? আমার মনে হয়না খুব একটা ব্যাখ্যা করা লাগবে, তবুও করি। ধরেন একজন আপনার কাছে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে কিছু জানতে চায়; আর আপনি তার ম্যাসেজ/মেইল পেলেনই না। এদিকে ঐ লোক তো ম্যাসেজ/মেইল পাঠিয়ে অপেক্ষা, অপেক্ষা, অপেক্ষা করতে করতে একসময় রাগে অন্য কোন প্রোভাইডার থেকেই সার্ভিস/প্রোডাক্ট নিয়ে নিলো, গেলোতো আপনার বিজনেস, তাই না?

ফেসবুক ইদানিং কালে খুব উৎসাহী স্প্যাম বক্সে ম্যাসেজ গুলি পাঠাতে, আর গুগল মামুতো আগে থেকেই ইয়াহুর সাথে রাগ করে প্রচুর পরিমানে ম্যাসেজ স্প্যাম/যাঙ্ক এ পাঠায়; ফলাফল, আমরা চিপায়।

গত মে মাসের ২১ তারিখে একটা কম্পানির সাথে বেশ ভালো একটা চুক্তি হয়; এবং আমি অপেক্ষা করতে থাকি তাদের ম্যাসেজ/মেইলের। অপেক্ষা আর শেষ হয় না। এদিকে বেশ কিছু কাজের চিপায় পড়ে আমিও আস্তে আস্তে ভুলে যাই সব কিছু। আজকে প্রায় এক মাস ৬দিন পর এসে দেখি, উনি ম্যাসেজ ঠিকই পাঠিয়েছেন, খালি ফেসবুক সব ম্যাসেজ সযত্নে স্প্যামএ পাঠিয়ে দিয়েছে। ব্যাস, আর যায় কোথায়, বাশঁটা আমারই!

এমন প্রচুর মেইল আমাদের স্প্যামে যাচ্ছে, আমরা হয়ত না পড়েই ডিলিট করে দিচ্ছি। আর মেইলে যতটা না সামনে দেখা যায়, ফেসবুক রাখে লুকায়ে, ফলে দেখা হয়না অনেক সময়ই।

ইদানিং সময়ে লক্ষ্য করছি যে যাদের সাথে ফেসবুকে নিয়মিত কথা বলা হচ্ছে, তাদের ম্যাসেজও মাঝে মধ্যে স্প্যামে চলে যাচ্ছে। এমনটা হবার যে কারণ এখন পর্যন্ত পেয়েছি, তা হলো সে হয়তো কোন লিংক আমাকে দিয়েছে, কিন্তু ফেসবুক কাকায় মনে করছে সেটা আসলে স্প্যামিং। আজকে চেক করে দেখি মোট ২০টা ম্যাসেজ স্প্যামে পড়ে আছে, যা গত ১মাসে আমাকে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে সাহায্য চেয়েছেন প্রায় ৫/৬ জন। ২/৩ টি ম্যাসেজ আসলেই স্প্যাম ছিলো; আর বাদ বাকি লোকজন কোন না কোন কারনে হাই হ্যালো দিয়েছেন।

এখন আমি যদি এক মাস পরে হাই হ্যালোর জবাব দেই; কেমন দেখায়? তাই সাধু সাবধান, নিয়মিত স্প্যাম চেক করো হে। আমি আজকে প্রতিদিনের জন্য একটা নির্দিষ্ট সময়ের এলার্ম সেট করলাম, এই সময়ে মনে করে ফেসবুকের স্প্যাম বক্স চেক করবো। না হলে হয়তো আরও বড় কোন বিপদে পড়বো কবে।

One thought on “বিজনেসের বাশঁ হইতে স্প্যাম ফোল্ডারই যথেষ্ট!

  1. বড়ই চিন্তার বিষয় মশাই , জাতির পরিত্রাণের কি কোন উপায় নাই ।।?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *