অগোছালোই ভালো!

অগোছালোই ভালো! মাঝে মাঝে গোছালোটা আসলে বড়ই অগোছালো! কখনও কখনও ছন্নছাড়া ভাবে শুরুকরাটাই শ্রেয়, গোছানোর অপেক্ষায় থাকলে পস্তাতে হয়। একবার শুরু করলে পরেও গোছানো যায়, কিন্তু গোছানোর অপেক্ষায় শুরু না করতে পারলে কিছুই হয় না।

ছোট থেকেই আমার অভ্যাস ছিলো পড়ালেখা করতে হলে প্রথমে টেবিল পরিস্কার করতাম, বিছানা, বুকসেলফ ইত্যাদি ইত্যাদি। এই এত কিছু পরিস্কার করতে করতে এমন কিছু না কিছু সামনে পড়তোই যা নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা নষ্ট করা যায়; আর ফলাফল হতো লেখা পড়া টোঙ্গে উঠতো!

এই অভ্যাস ছিলো এইচএসসি পর্যন্ত। বেশ আয়োজন করে পড়তে বসা সব সময়ই আমাকে পস্তিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবার পর অবশ্য এইসবের ধার ধারতাম না। তাছাড়া বেশী পড়া হতো ভার্সিটির লাইব্রেরিতে বসেই। আর বাসায় ফিরে যা পড়ালেখা সব কম্পিউটারেই।

বিজনেস পড়তে গিয়ে জেনেছি ম্যালা কিছু করতে হয়। বিজনেস প্লান, মার্কেটিং প্লান, ইনভেষ্টমেন্ট প্লান, আরও কত কি। বাস্তবে দেখেছি লাগে ইচ্ছা, সাহস, কষ্ট সহ্য করবার ক্ষমতা আর একটু এনালাইসিস। তারপর শুধু সাহস করে নেমে পড়া। এরপর লাগে দাতঁ কামড়ে ধরে পড়ে থাকার ইচ্ছা এবং শক্তি।

আমি এ পর্যন্ত যে কয়টা প্রজেক্ট দাড় করিয়েছি; তার বেশীর ভাগই খুব গোছালো ভাবে হয়নি। যেমন SiteNameBD এর কথাই ধরি; শুরুটা করেছিলাম হঠাৎই, জানতাম ডোমেইন হোস্টিং এর বিজনেস ভালো হবে, নেমে পড়লাম। যখন নেমে পড়েছি, দেখলাম হাতে টাকা নেই। পকেটের ১৫০০ টাকা আর ধার করা ১০০০ টাকা নিয়ে নিজের নামের ডোমেইন shafiul.com দিয়েই লেগে পড়লাম। নিজের কাছেই হাস্যকর লাগতো যে বিজনেস করতেছি, কিন্তু বিজনেস ডোমেইন নাই!

প্রথম হোস্টিং একাউন্ট সেল হলো খুব দ্রুতই, শুরু করবার ৪৮ ঘন্টার ভিতরে। এরপর থেকে এক এক করে বিক্রি হয়েছে। অনেকেই নাক সিটকাতো  কিন্তু বিক্রি হতে থাকলো। এক সময় নিলাম বিজনেস ডোমেইন। এর পর একে একে কয়েকটি প্রজেক্ট দাড় করিয়েছি, কিছু চলছেও, কিছু থেমে থেমে চলছে। আর গত পাঁচ বছরে যে কয়টা জিনিষ খুব গুছিয়ে শুরু করবার চেষ্টা করেছি, তার একটাও চালুই হয়নি।

এত টেনশন নেবার কিছু নেই, কিছু করতে চাইলে শুরু করে দিন। কারণ আপনি যতদিনে গোছাবেন, ততদিনে কেউ না কেউ সেটা শুরু করে দিবে; যতদিনে আপনার কাজ ভালো ভাবে চলা শুরু করবে, ততদিনে কেউ না কেউ দুর্দান্ত গতিতে করতে থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *